মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

সাংবিধানিকভাবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে এককেন্দ্রিক শাসন ব্যবস্থা প্রচলিত রয়েছে। সে আলোকে মাঠ প্রশাসনের (Field Administration) সর্বনিম্ন (উপজেলা পর্যায়ে) উপজেলা প্রশাসন কাজ করে থাকে। গনমানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিতকল্পে বহুবিধ সেবা, জীবনমান উন্নয়ন এবং আর্থ সামাজিক অগ্রগতি ও প্রবৃদ্ধিতে জেলা প্রশাসনের ভূমিকা দুইশত বৎসরের গৌরবে উচ্চকিত। জেলা প্রশাসনের কর্নধার একাধারে জেলা প্রশাসক, জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ও কালেকটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করে থাকেন। অন্যদিকে তদানীন্তন মহকুমা প্রশাসনের দায়িত্বে ছিলেন SDO ( Sub Divisional Officer) যিনি একাধারে প্রশাসনিক, বিচারিক ও কালেকটরের ভূমিকা পালন করতেন। ১৯৮২ সালে উপজেলা পরিষদ প্রর্বতনের পর এই পদটি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (UNO) হিসাবে পরিচিতি পায়। ১৯৯১ সালে উপজেলা পরিষদ বিলুপ্তির পর থানা নির্বাহী অফিসার (TNO) হিসাবে পরিচিতি পেলেও উপজেলা পরিষদ পুন: প্রর্বতনের ফলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (UNO) হিসাবে পদটি পুনরায় পরিচিত হয়। ইউএনও কেন্দ্রিয় সরকারের উপজেলা পর্যায়ে প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি উপজেলা পর্যায়ে বিস্তৃত মন্ত্রনালয়ভিত্তিক বিভিন্ন অধিদপ্তরের অফিসসমূহের কার্যাবলী সমন্বয় করে থাকেন। এছাড়া তিনি উপজেলা পরিষদকে উপজেলা পরিষদ আইন মোতাবেক মূর্খ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (UNO) হিসাবে সাচিবিক সহায়তা দিয়ে থাকেন। এছাড়া তিনি মন্ত্রীপরিষদের বিভাগের আওতায় নির্বাহী হাকিম হিসাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে থাকেন।

ঝিনাইদহ জেলাধীন শৈলকুপা  উপজেলায় ১৪টি ইউনিয়ন আলাদা করে ১৯১৭ সালের ১৫ জুলাই শৈলকুপা থানা প্রতিষ্ঠা হয়। ঐ সালের ২১ সেপ্টেম্বর গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হওয়ার পর ১৯১৮ সালের ১ জানুয়ারী থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শৈলকুপা থানার কার্যক্রম চালু হয়।

 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter